তারকাদের জীবনে ভাঙ্গাগড়ার সংসার

Written by: moonlight


About : This author may not interusted to share anything with others

12 months ago | Date : September 24, 2016 | Category : Bangla,Dallywood | Comment : Leave a reply |

প্রেম ভালোবাসা শুধু মানুষকে কাছেই টানেনা দূরেও ঠেলে দেয়। আসলেই কথাটি সত্যি যে গভীর প্রেমের পরিনতি নির্মম! মানুষ বলতে সবার মনেই প্রেম আসে কারোটা প্রকাশ হয় আর কারোটা প্রকাশ হীন থাকে। কেউ আবার নিজের ভিতরই চাপা দিয়ে রাখেন। তারকাদের জীবনেও প্রেম আসে। অভিনয় থেকে প্রেম আর এই প্রেমই হয় এক সময় পরিনাম। কারো ক্ষেত্রে ভয়াভহ আবার কারো মধুর। তবে বেশির ভাগই হয় জীবনের ভাঙ্গন। তারকারা লুকিয়ে লুকিয়ে প্রেম করে। আবার প্রেম যদি গভীর হয়ে যায় এবং পারিবারিক ঝামেলা থাকে তাহলে পালিয়ে বিয়ে করে। কিন্তু সবছেয়ে বড় কথা হচ্ছে এই বিয়ে থেকে কত দিন কতজনই বা সুখি হতে পারে প্রেমের বিয়েতে। কিছু দিন আনন্দে কাটনেও তারপরের জীবন ভাসতে থাকে দুঃখের সাগরে। যদি কোন কারনে স্বামী একটু বেকে যায় তাহলে না পায় পিতা মাতাকে না পায় শশুর শাশুরিকে। সবমিলিয়ে জীবনে এসে যায় কঠিন ঝড়। আর তারকাদের সম্পর্কে আর কি বলব। কথায় আছে তারকাদের সংসার বালির বাঁধ। তারকাদের জীবনে ভাঙ্গাগড়ান সংসার নিয়ে পূর্বপশ্চিমবিডি ডটকমের বিশেষ আয়োজন।

নিচে তারকাদের জীবনে সংসার ভাঙ্গাগড়ার কয়েকটি চিত্র তুলে ধরলাম…

আলমগীর

alamgir

জনপ্রিয় অভিনেতা আলমগীরের জীবনে স্ত্রী হয়ে আসে গীতিকবি খোশনূর আলমগীর। কিন্তু আলমগীরের সম্পর্ক হয় প্রখ্যাত সঙ্গীতশিল্পী রুনা লায়লার সঙ্গে। যার কারনে তার প্রথম সংসার বিচ্ছেদ হয়। খোশনূর আলাদা থাকেন। তাদের ঘরে এক মেয়ে আখি আলমগীর এক জন জনপ্রিয় কন্ঠ শিল্পী। অন্যদিকে আলমগীর রুনা লায়লাকে নিয়ে সংসার করছেন।

রুনা লায়লা

উপমহাদেশের প্রখ্যাত কন্ঠশিল্পী রুনা লায়লার এই প্রযন্ত তিনটি বিয়ে হয়েছে। খাজা জাভেদ কাউসারের সাথে তার প্রথম বিয়ে হয়। দ্বিতীয় বিয়া হয় সুইজারল্যান্ডের নাগরিক রন ড্যানিয়েলকে। আর তিনি বর্তমানে আছেন চিত্র নায়ক আলমগীর কে নিয়ে।

সুবর্ণা মুস্তাফা

suborna-mostofaঅভিনেতা হুমায়ুন ফরিদী ও অভিনেত্রী সুবর্ণা মুস্তাফা উভয় উভয়কে ভালোবেসে বিয়ে করেন। এটা ছিল হুমায়ুন ফরিদীর দ্বিতীয় বিয়ে। বিয়ের পর কিছুদিন তাদের সংসার খুব সুখেরই ছিল। সুবর্ণা মুস্তফা হঠাৎ করে হুমায়ুন ফরিদীকে ডিভোর্স দিয়ে নাট্যনির্মাতা বদরুল আনাম সৌদি কে বিয়ে করেন। তাদের এই বিয়ে মিডিয়ার সবছেয়ে আলোচিত বিষয় ছিল। সুখের সংসারের মাঝ খানে আবার ফাটল ধরেছে এমন কথাও শুনা গেছে মিডিয়াতে।

 

ইলিয়াস কাঞ্চন-দিতি

ilais-kanchon, ইলিয়াস কাঞ্চনবাংলা চলচ্চিত্রের এক সময়ের জনপ্রিয় চিত্রনায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন ও জনপ্রিয় নায়িকা দিতি ভালোবেসে দুজন দুজনাকে বিয়ে করেন। এটা ছিল উভয়েরই দ্বিতীয় বিয়ে। তাদের সন্তানের কথা বিবিচনা করেই বিয়ে করেন। কিন্তু সন্তানেরা তাদের বিভাহ মেনে নিতে পারেননি। একসময় তাদের সংসার বিচ্ছেদ ঘটে। ইলিয়াস কাঞ্চনের প্রথম স্ত্রী সড়ক দুর্ঘটনায় মারা যান এবং দিতির স্বামী চিত্র নায়ক সোহেল চৌধুরীকে র্দুবৃত্তরা হত্যা করেন ।

 

মমতাজ

momotajফোক সম্রাজ্ঞী খ্যাত জনপ্রিয় সংগীতশেল্পী মমতাজের বিয়ে হয় তিনটি। তার জীবনে প্রথম স্বামী হয়ে আসেন বাউল শিল্পী রশিদ বয়াতি। তার সঙ্গ ত্যাগ করার পর বিয়ে হয় তৎকালীন চেয়ারম্যান রমজান আলীর সাথে। তার সাথেও সুখি হতে পারেন নি বেশি দিন। তার সাথে বিভাহ বিচ্ছেদ হয়ে যায়। তার বর্তমান স্বামী হচ্ছে চিকিৎসক মঈন হাসান চঞ্চল। তার নিজের প্রতিষ্ঠা করা মমতাজ চক্ষু হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক ছিলেন মঈন হাসান চঞ্চল। তাদের প্রথমে প্রেম তার পর বিয়ে।

আরেফিন রুমী

সঙ্গীত পরিচালক এবং গায়ক আরেফিন রুমী দাম্পত্য জীবন নিয়ে অনেক কথা হয়েছে মিডিয়াতে। তাদের দাম্পত্য ঝামেলা দেশবাসীও জানে। ২০০৮ সালে লামিয়া এসলাম অনন্যা স্ত্রী হয়ে আসেন আরেফিন রুমীর জীবনে। কিন্তু এই একত্র থাকা বেশি দিনের নয় মাত্র চার বছরের। ২০১০ সালে তাদের ঘরে একটি পূত্র সন্তান হয়। এবং ২০১২ সালে বিভাহ বিচ্ছেদ হয়। বর্তমানে তার জীবনে যুক্তরাষ্ট্র প্রবসী কামরুননেসা। এই ঘরেও একটি পূত্র সন্তন হয়েছে।

রুমানা

মডেল ও অভিনেত্রী রুমানা বিয়েতে হ্যাট্রিক করেছে। রুমানা প্রথম ভালোবেসে বিয় করেন বিজ্ঞাপন নির্মাতা এবং উপস্থাপক আনজাম মাসুদকে। এই বিয়ে বিচ্ছেদের পর তিনি বিয়ে করেন ঢাকার এক ব্যবসায়ী সাজ্জাদ কে। কয়েক বছর পর তাদের সংসারে ফাটল ধরে বেড়ে যায় মানসিক দুরত্ব। এক পর্যায়ে বিভাহ বিচ্ছেদ। বর্তমানে রুমানার জীবনে আছে আমেরিকার এক ব্যবসায়ী।

জয়া- ফয়সাল

টিভি অভিনেত্রী জয়া বিয়ে করেন মডেল পয়সালকে। কয়েক বছর তাদের সংসার ভালোই কাটছিল। হঠাৎ করে কোন এক বিষয় নিয়ে তাদের মাঝে মনমালিন্য দেখা দেয়। এমন সময় ফয়সাল অসুস্থ হয়ে থাকেন হাসপাতালে। এদিকে জয়ে হাসপাতালেই ডিভোর্স লিটার পাঠিয়ে দেন। এর পর তার একাধিক প্রেমের কথা শুনা যায়। সেই প্রেম আর বিয়ে প্রযন্ত পৌছায়নি। বর্তমানে জয়া বাংলাদেশ ও ভারতের ছবিতে নিয়মিত কাজ করছেন।

সাবিনা ইয়াসমীন

প্রখ্যাত সংগীতশিল্পী সাবিনা ইয়াসমীন বিয়েতে রেকর্ড করেন। এই পর্যন্ত তার তার জীবনে তিনজন এসেছেন। তার জীবনে প্রথম আসে আনিসুর রহমান নামের এক ব্যাংকার। এই বিয়ে টিকেনি বেশিদিন। বিচ্ছেদ হয়ে যায় তাদের সংসার। এর পর তার জীবনে আসে নৃত্য পরিচালক আমির হোসেন বাবু। তাদের ঘরে একটি কন্যা সন্তান হয়েছে। কয়েক বছর পর এই বিয়েও বিচ্ছেদ হয়ে যায়। বর্তমানে তার স্বামী হিসাবে আছেন অপার বাংলার জনপ্রিয় সংগীত শিল্পী কবীর সুমন।

মৌসুমী নাপ

অভিনেত্রী অরুনা বিশ্বাস ভাইয়ের স্ত্রী মৌসুমি নাপকে মিডিয়ায় এনেছেন। মৌসুমীর স্বামী পরিচালক মিঠু বিশ্বাসের সাথে তার সম্পর্ক ভালো যাচ্ছিল। কিন্তু শোয়েবের সাথে একই নাটকে কাজ করায় মৌসুমির প্রেমে পরে অভিনেতা শোয়াব। এতে মৌসুমিও সম্মতিদেন। একসময় মিঠুকে ডিভোর্স দিয়ে বিয়ে করেন শোয়াব কে।

মোনালিসা

মডেল অভিনেত্রী মোনালিসা পারিবারিক এক আয়োজনে আমেরিকার প্রবাসী ফাইয়াজকে বিয়ে করেন। এক বছর পরেই তাদের বিয়ে বিচ্ছেদ ঘটে। আমেরিকাতেই মোনালিসা সঙ্গী হীন ভাবে জীবন কাটাচ্ছেন। আগে মোনালিসা আমেরিকার একটি টিভি চ্যানেলের অনুষ্ঠান প্রযোজক হিসাবে কাজ করতেন। বর্তমানে তিনি সেখান কার একটি বিখ্যাত ব্র্যান্ডের সুপার মলে কাজ করেন।

জেমস

জনপ্রিয় ব্যান্ড তারকা ভালোবেসে প্রথমে বিয়ে করেন অভিনেত্রী রথিকে। সেখানে তাদের একটি পুত্র সন্তান হয়। এই সংসার বেশি দিন টিকেনি। ২০০২ সালে তাদের ডিভোর্স হয়ে যায়। এর পর জেনস বেনজির সাজ্জাদ নামে এক প্রবাসীর প্রেমে পরে। এবং তাদে বিয়ে করেন। এই ঘরে তাদের একটি কন্যা সন্তান হয়েছে। এখানেও তেমন সুখি হতে পারেননি তিনি। এই বিয়ে নিয়ে মিডিয়ায় ব্যপক আলোচনা হয়েছে এমন কি জেন প্রযন্ত।

ববিতা

জনপ্রিয় এবং খ্যাতি সম্পন্ন অভিনেত্রী ববিতা প্রথম বিয়ে হয় ইফতেখারের সাথে। এখানে ববিতা সুখি হতে পারেননি ফলে তাদের সম্পর্ক ছিন্ন হয়। এক মাত্র পুত্র সন্তান অনিকের দিকে তাকিয়ে তিনি দ্বিতীয় বিয়ে করেননি। ছেলেকে নিয়েই তার বর্তমান জীবন। ১৯৬৮ সাল থেকে ১৯৯০ সাল প্রযন্ত শীর্ষ নায়িকাদের এক জন ছিলেন ববিতা। সত্যজিৎ রায়ের অশনি সঙ্কেত ছবিতে অভিনয় করে আন্তর্জাতিক ভাবে খ্যাতি অর্জন করেন। অনেক বার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার লাভ করেন।

সুচরিতা

বাংলা চলচ্চিত্রের অন্যতম জনপ্রিয় জুটি সুচরিতা-জসিম। ভালোবেসে তাদের বিয়ে হয়। অল্প কিছুদিন পরেই তাদের বিভাহ বিচ্ছেদ হয়। এর পর সুচরিতা বিয়ে করেন চলচ্চিত্র প্রযোজক কে এম আর মঞ্জুর কে। এই বিয়েও টিকেনি তার। আর অন্য দিকে জসিম বিয়ে করেন চলচ্চিত্র অভিনেত্রী নাসরিনকে।

কুমার বিশ্বজিৎ

শিল্পী কুমার বিশ্বজিৎ প্রথম বিয়ে করেন অভিনেত্রী রুনাকে। তাদের সংসার বিচ্ছেদ হয়ে যায়। এর পর তিনি দ্বিতীয় বিয়ে করেন এখানে তার কুমার নিবিড় নামে একটি পুত্র সন্তান আছে। অন্যদিকে রুনা প্রবাসে চলে যায়।

সামিনা চৌধুরী

সংগীত শিল্পী সামিনা চৌধুরী প্রথম বিয়ে করেন জনপ্রিয় শিল্পী ও সঙ্গীত পরিচালক নকীব খানকে। তাদের সংসার টিকেনি সামিনা চৌধুরী ডিভোর্স দেন নকীব খানকে। এর পর দ্বিতীয় বিয়ে করেন অনুষ্ঠান নির্মাতা এজাজ খান স্বপনকে।

আফসানা মিমি

আফসানা মিমি একটি নাট্য কামী দলে কাজ করতেন। সেখান থেকে পরিচয় হয় নির্মাতা এবং অভিনেতা গাজী রাকায়েতের সাথে। তার পর দুজন চলে আসেন নাগরিক নাট্য সম্প্রদায়ে। এক সাথে কাজের ফাকে প্রেম করেন উভয়ে। তার পর বিয়ে। কিন্তু তাদের এই বিয়ে টিকেনি বিচ্ছেদ ঘটে তাদের মধ্যে। মিমি আর বিয়ে করেন নি পরিচালনা নিয়ে ব্যাস্ত। অন্যদিকে রাখাত দ্বিতীয় বিয়ে করে বেশ সুখিই আছেন।

নওশীন

নওশীন প্রথম কাজ করেন মিডিয়াতে এর পর টিভি অনুষ্ঠানে। ব্যপক জনপ্রিয়তা লাভ করেন তিনি। নাটকে অভিনয় করতে করতেই সম্পর্ক করেপেলেন অভিনেত্রী হিল্লোলের সাথে। হিল্লোলের প্রথম স্বামী হচ্ছে তিন্নি সেই সম্পর্ক বিচ্ছেদের পর তিনি নওশীন কে বিয়ে করেন। নওশীনেরও এটি দ্বিতীয় বিয়ে। তার প্রথম সংসারে একটি পুত্র সন্তান আছে।

রবি চৌধুরী

জনপ্রিয় কন্ঠ শিল্পী রবি চৌধুরী ডলি সায়ন্তনী উভয় উভয়কে ভালোবেসে বিয়ে করেন। ডলি সায়ন্তনী রবির সাথে মিশতে নাপেরে ডিভোর্স দিয়ে দেন। তিনি দ্বিতীয় বিয়ে করেন কক্সবাজারে। এই বিয়েও টিকেনি। বর্তমান অর্থাৎ তৃতীয় সংসারে তার একটি পুত্র সন্তান আছে।

রোকেয়া প্রাচী

তার প্রথম স্বামি আহাদ পারভেজের মৃত্যু হয় ১৯৯৯ সালে। এর পর ২০০১ সালে তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের আইনের শিক্ষক আসিফ নজরুলকে বিয়ে করেন। কথা সাহিত্যিক হুমায়ুন আহমেদের মেয়ে শীলা আহমেদের পুরনো প্রেমে জড়িয়ে যান আসিফ নজরুল। এমনকি গোগনে বিয়েও করেন। ফলে রোকেয়া প্রচীর সাথে আসিফ নজরুলের বিচ্ছেদ ঘটে। তিনি আর বিয়ে করেন নি দুই সন্তান কে নিয়েই বাকি জীবন কাটাতে চান।

বেবী নাজনীন

ব্ল্যাক ডায়মন্ড খ্যাত কন্ঠশিল্পী বেবী নাজনিন সঙ্গীত জীবন নিয়ে খুব সুখেই ছিলেন। যত ঝামেলা হয় সংসার জীবনে। তিনি ভালোবেসে পারিবারিক ভাবে বিয়ে করেন সোহেল অমিতাভকে। তাদের এই সংসার বেশি দিন স্থায়ী হয় নি তাদের ঘরে একটি পূত্র সন্তান। এই সন্তান কে নিয়েই বেবী নাজনীনের জীবন। বেশির ভাগ সময়ই বিদেশে ব্যস্ত সময় পার করছেন।

জেনি

বিজ্ঞাপনচিত্রের নির্মাতা অমিতাব রেজাকে ভালোবেসে বিয়ে করেন জেনি। কিছু দিন ভালো কাটলেও সুখি হতে পারেনি জিনি। একসময় বিভাহ বিচ্ছেদ। এর পর আমিতাব রেজা বিয়ে করেন অভিনেত্রী-মডেল মিথিলার ছোট বোন মিমকে। আর অন্য দিকে জেনি বিয়ে করন একটি বেসরকরি টেলিভিশনের অনুষ্ঠান প্রধান তানভীর খানকে।

রিজিয়া পারভীন

গীতিকার ও সুরকার আবদুল খালেকের মাধ্যমেই রিজিয়া পারভিন সঙ্গীত ভূবনে আসেন। দির্ঘদিন এক সাথে কাজ করার মাধ্যমে তাদের মধ্যে ভালোবাসা হয়। এমনকি বিয়ে। তারা ছেয়ে ছিলে সারা জীবন যাতে একসাথে থাকতে পারে কিন্তু তাদের একত্রে থাকাটি বেশিদিন স্থায়ী হয় নি। একসসয় তাদের সম্পর্ক বিচ্ছেদ। এর পর অনেকের সাথে তার সম্পর্কের কথা শুনা গেলেও বিয়ে আর হয়নি। সঙ্গীহীন জীনন নিয়ে কাটাচ্ছে তার দিনগুলো।

দেবাশীষ- তানিয়া

উপস্থাপক দেবাশীষ বিশ্বাস ভালোবেসে বিয়ে করেন অভিনেত্রী ৎ তানিয়া হোসেনকে। প্রথমে বিষয়টি তারা উভয়েই গোপন রেখেছেন। এক সময় যখম জানাজানি হল তখন আর তাদের বিয়ে টিকল না। এর পর দেবাশীষ বিয়ে করলেও তানিয়া হোসেন এখন বিয়ে করতে নারাজ।

 

 

লিখাটি আপনার কালেকশানে রাখার জন্য আপনার ফেজবুকে শেয়ার দিন

tags: ,

Leave a Reply

Your email address will not be published.


↑ Top